জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা নি‌য়ে আমরা বেশ কিছু প্রশ্ন পাচ্ছি। নানা রকম বিষয়ে জিজ্ঞাসা করেছেন অনেকেই। সাধারণ কিছু প্রশ্নের উত্তর এখানে যুক্ত করা হচ্ছে।

সাধারণ বিষয়

কী কী প্রতিযোগিতা হবে?
>> এই আয়োজনে আইসিটি কুইজ এবং কম্পিউটার প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা থাকবে। উভয় প্রতিযোগিতা অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে। কুইজ প্রতিযোগিতার সময় সীমা থাকবে ৩০ মিনিট যেখানে আইসিটি বিষয়ক বেশ কিছু বহু নির্বাচনী প্রশ্ন থাকবে এবং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বেশ কিছু প্রোগ্রামিং সমস্যা সমাধান করতে হবে যে কোন একটা প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহারের মাধ্যমে।

এই প্রতিযোগিতায় কারা অংশ নিতে পারবে?
>> কুইজ ও প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় দুইটি ক্যাটাগরিতে (স্কুল ও কলেজ) শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পারবে। প্রতিযোগিতা হবে একক। দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যম, মাদ্রাসা এবং পলিটেকনিক) ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণী ও পলিটেকনিক চতুর্থ পর্ব পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করবে। ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা স্কুল ক্যাটেগরি এবং দশম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী ও পলিটেকনিকের প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা (চতুর্থ সেমিস্টার পর্যন্ত) কলেজ ক্যাটাগরিতে অংশগ্রহণ করবে।

একই শিক্ষার্থী কী কুইজ এবং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে?
>> না। একজন শিক্ষার্থী শুধুমাত্র কুইজ অথবা প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার যে কোন একটিতে অংশগ্রহন করতে পারবে।

এবছর আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা কোথায় অনুষ্ঠিত হবে?
>> এবছরের সম্পুর্ন প্রতিযোগিতা অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে তাই কোন আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা হবে না।

অংশগ্রহণের জন্য কী আগেই নিবন্ধন করতে হবে?
>> হ্যাঁ। প্রত্যেককে কুইজ অথবা প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য http://online.nhspc.org লিংকে গিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

প্রতিযোগিতা কী দলগত হবে নাকি একক?
>> কুইজ এবং কম্পিউটার প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা দুটোই হবে ব্যক্তিগত। অর্থাৎ তোমাকে একা একা অংশ নিতে হবে। দলীয়ভাবে অংশ নেওয়া যাবে না।

কম্পিউটার প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় কোন প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করতে হবে?
>> সি(C)/ সি++(C++) এবং পাইথন

প্রতিযোগিতার বিচার পদ্ধতি কি এসিএম আইসিপিসি (ACM ICPC) এর মত হবে নাকি আন্তর্জাতিক ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াডে (IOI) এর মতো হবে?
>> প্রথাগত এসিএম আইসিপিসি-এর বদলে এই প্রতিযোগিতার জাজিং হবে হাইস্কুল পর্যায়ের জন্য অধিকতর উপযোগী আইওআই (আন্তর্জাতিক ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াড) জাজিং পদ্ধতিতে। প্রথাগত পদ্ধতিতে প্রতিযোগীদের সাবমিট করা একটি সমাধানকে বিচার করে সঠিক বা ভুল সিদ্ধান্ত দিয়ে থাকেন বিচারক গণ। সঠিক হলে পূর্ণ নম্বর পাওয়া যায়, ভুল হলে সরাসরি শূন্য (০)। এক্ষেত্রে অনেক সময় দেখা যায় যে, বিচারকদের কোন একটি সমাধান হয়তো ১০টি টেস্ট নমুনা ডেটার ৯টিতেই ঠিকমত কাজ করছে, ছোট কোন ভুলের জন্য একটি কেসে হয়ত ব্যর্থ হচ্ছে। দুঃখজনক ভাবে, এই সমাধানটিও কোন নম্বর পাবে না। কিন্তু আইওআই পদ্ধতিতে ১০টি কেসের ৯টি সফল হলে ৯০% নম্বর পাওয়া যাবে তেমনি ১০টির ২টি ঠিক হলে পাওয়া যাবে ২০%। অর্থাৎ আংশিক ভাবে সঠিক সমাধান দিতে পারলে তার জন্য পয়েন্ট পাওয়া যাবে।

পাইথনে কি প্রোগ্রাম করা যাবে?
>> হ্যাঁ যাবে।

আমি আগে কখনো অনলাইনে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা করিনি। কেমন করে করবো?
>> রিসোর্স

অনলাইন প্রোগ্রামিং কনটেস্টে অংশ নেওয়ার জন্য কী করা দরকার? কীভাবে আমার সমাধান জমা দেব?
>> এই ভিডিওটিতে ধাপে ধাপে কীভাবে একটা সমস্যার সমাধান অনলাইন জাজে জমা দিতে হয় তা বলা আছে। এখান থেকে তুমি তা দেখে নিতে পারো।

কুইজ প্রতিযোগিতার প্রশ্ন বাংলা না ইংরেজিতে হবে?
>> আইসিটি কুইজের প্রশ্ন বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় দেওয়া থাকবে।

আইসিটি কুইজের সিলেবাস কী?
>> আইসিটি কুইজে এনসিটিবি অনুমোদিত আইসিটি সিলেবাস থেকে এবং আইসিটি বিষয়ক সাধারণ জ্ঞানের প্রশ্ন থাকবে।

আইসিটি কুইজের প্রশ্ন কি এমসিকিউ হবে?
>> এমসিকিউ এবং লিখে উত্তর দেওয়ার মত উভয় ধরনের প্রশ্ন থাকবে। লিখে উত্তর দিতে হবে এমন উত্তর সবসময় একটি সংখ্যা হবে। সংখ্যাটি ইংরেজি সংখ্যা প্রতীকে (1, 2, 3, 4, 5, 6, 7, 8, 9, 0, ., +, - ইত্যাদি) লিখতে হবে।

কুইজের এমসিকিউ প্রশ্নে কয়টি অপশন থাকবে?
>> ৩, ৪ বা ৫ টি অপশন থাকবে। অর্থাৎ অপশনের সংখ্যা নির্দিষ্ট নয়।

এবছর যারা এসএসসি দিয়েছে তারা কোন শ্রেণি আর স্কুল/কলেজ দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করবে?
>> এবার যারা SSC দিয়েছে তারা স্কুলের ১০ম শ্রেনি সিলেক্ট করবে এবং স্কুলের নাম লিখবে।